আপডেট : ২৪ জানুয়ারী, ২০১৬ ১৮:১৩

বনভোজনে বিপত্তি! বিষাক্ত মদ পানে মৃত ৪

বিডিটাইমস ডেস্ক
বনভোজনে বিপত্তি! বিষাক্ত মদ পানে মৃত ৪

বনভোজন বলতে আনন্দ-উৎসব সহযোগে বনে কিংবা বাড়ীর বাইরে খাবার ভোজন করাকে বুঝায়। ছেলে-বুড়ো সব বয়সি মানুষের কাছে বনভোজন অনাবিল আনন্দের এক উপলক্ষ এনে দেয়। কিন্তু বিপত্তি ঘটে যখন এই আনন্দ লাগামছাড়া হয়ে পড়ে তখনই।

বনভোজনে গিয়ে এমনই লাগামছাড়া উৎসবে মেতে বিপত্তিতে পড়েছেন নওগাঁ জেলার একদল বনভোজন প্রিয় মানুষ।

একটু আধটু গলা না ভিজালে তো বনভোজনের মজাই উপভোগ করা হলো না। এমনি চিন্তা থেকেই অতিরিক্ত বিষাক্ত মদপান করে মারা গেছেন বদলগাছী উপজেলার এনাতেপুর গ্রামের চার যুবক। মদপানে অসুস্থ হয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে আছেন আরও চারজন।

নিহত ব্যক্তিরা হলেন বদলগাছী উপজেলার বিলাসবাড়ি ইউনিয়নের এনায়েতপুর গ্রামের মৃত কুরানু সরদারের ছেলে সোলায়মান আলী (৫০), পুকরা মণ্ডলের ছেলে হোসেন আলী (৩৫), আজাহার আলীর ছেলে সুজন (২৭) ও পাশের নূরপুর গ্রামের লকাই মণ্ডলের ছেলে আবদুল মজিদ (২৫)।

গ্রামবাসীর বরাত দিয়ে বদলগাছী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম জানান, উপজেলার এনায়েতপুর ও নূরপুর গ্রামের আটজন যুবক বিদেশি মেয়াদ উত্তীর্ণ মদ সংগ্রহ করে গত বৃহস্পতিবার (২১জানুয়ারি) সন্ধ্যায় বদলগাছী উপজেলার এনায়েতপুর হাটে বনভোজনের আয়োজন করে।

বনভোজনে তাঁরা ওই মদসহ গরুর মাংস খান। রাতে তাঁরা নিজ নিজ বাড়িতে গিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। পরের দিন শুক্রবার সকাল থেকে ক্রমেই অসুস্থ হয়ে পড়েন সবাই। দুপুরের পর বনভোজনে অংশগ্রহণকারী আটজনকে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সেখানে এনায়েতপুর গ্রামের সুজন ও তসলিমের ছেলে সজলকে (২২) বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। আর পাশের নূরপুর গ্রামের আবদুল মজিদকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

বাকি পাঁচজন এনায়েতপুর গ্রামের সোলাইমান আলী, হোসেন আলী, আবু হাসেমের ছেলে উজ্জ্বল রহমান (৩৫), আবদুর রহমানের ছেলে সুমন রহমান (২৬) ও মোকছেদ আলীর ছেলে মোসলেম উদ্দীনকে (২৪) নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

শুক্রবার রাত ৯টার দিকে সোলায়মান আলী ও হোসেন আলী চিকিৎসাধীন অবস্থায় নওগাঁ সদর হাসপাতালে মারা যান। আবদুল মজিদ দিবাগত রাত ৩টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান। শনিবার বিকেলে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান সুজন। 

এ ঘটনার সংবাদ পেয়ে শনিবার (২৩জানুয়ারি) সকালে নওগাঁ সদর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার কানাই লাল সরকার নওগাঁ সদর হাসপাতাল পরিদর্শন ও বদলগাছী থানার ওসি রফিকুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

এ বিষয়ে নওগাঁ সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা মাহফুজার রহমান বলেন, রোগীদের তথ্য অনুযায়ী তাঁরা মদ পান করার পর অসুস্থ হয়ে পড়েন। মৃত ব্যক্তিদের লাশের ময়নাতদন্ত হলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে