আপডেট : ৬ জানুয়ারী, ২০১৬ ১৭:০৩

মেয়েকে হত্যা করে আত্মহত্যা বাবার

অনলাইন ডেস্ক
মেয়েকে হত্যা করে আত্মহত্যা বাবার

খুলনায়  মানসিক প্রতিবন্ধী মেয়েকে ‘গলা টিপে হত্যার পর’ এক বাবা নিজে ‘গলায় দড়ি দিয়ে’ আত্মহত্যা করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। মেয়ের নাম সুমাইয়া অরিন (১৭) এবং বাবা মোস্তফা কামাল (৫২) ।

বুধবার নগরীর ৮ আহসান আহমেদ রোডে এ ঘটনা ঘটে।

কামাল বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের খুলনা বিভাগে একটি ইউনিটে হিসাব কর্মকর্তা ছিলেন।

পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, অফিসের কিছু কাজের ব্যাপারে মানসিকভাবে প্রচণ্ড চাপে ছিলেন মোস্তফা কামাল। তা ছাড়া বড় মেয়ের শারীরিক অসুস্থতাও তাঁকে হতাশাগ্রস্ত করে তোলে। এ কারণে তিনি আত্মহত্যার পথ বেছে নেন।

খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী কমিশনার জিয়াউদ্দিন আহমেদ বলেন, “ধারণা করা হচ্ছে মোস্তফা কামাল মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে ‘আত্মহত্যার চিরকুট’ লেখার পর মেয়েকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন এবং পরে নিজে ফ্যানের সঙ্গে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

ঘটনাস্থল থেকে একটি ডায়রি উদ্ধার করা হয়েছে, যেখানে কামালের ‘আত্মহত্যার কারণ’ উল্লেখ করা হয়েছে।

ডায়রি উদ্ধৃত করে ওসি জানান, কামালের কোমরের হাড় ক্ষয় হয়ে যাওয়ায় তিনি ঠিকমতো বসতে পারতেন না। এ কারণে তিনি তার দপ্তরের পরিচালক ডা. অশোক কুমার পালকে অনুরোধ করেছিলেন তার কার্যালয় যেন চারতলা থেকে নিচতলায় স্থানান্তর করেন।  

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে

উপরে