আপডেট : ৩ জানুয়ারী, ২০১৬ ১৯:৪৯

সহিংসতার পক্ষে জনগণ নেই

বরিশাল প্রতিনিধি
সহিংসতার পক্ষে জনগণ নেই

খাদ্যমন্ত্রী মোঃ কামরুল ইসলাম এমপি বলেছেন, দেশের মানুষ প্রমাণ দিয়েছে যারা সহিংসতার রাজনীতি করে তাদের পক্ষে তারা নেই। তাই এবারের নির্বাচনে বিএনপির ভরাডুবি হয়েছে। ফের ৫ জানুয়ারি ইস্যু নিয়ে যদি দেশে অরাজকতা সৃস্টির পায়তারা করা হয় তাহলে সাধারণ মানুষই বিএনপিকে প্রতিহত করবে।

রবিবার (৩ ডিসেম্বর) বরিশাল নগরীর ত্রিশ গোডাউন বধ্যভূমি এলাকায় অত্যাধুনীক খাদ্য গুদাম নির্মানের কার্যক্রম পরিদর্শনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় তিনি বধ্যভূমি সংলগ্ন জায়গায় গুদাম নির্মান বিষয়ে বলেন, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার মুক্তিযুদ্ধের বধ্যভূমি বিষয়ে দ্বিমত প্রশন করতে পারেনা। তিনি প্রস্তাব দেন প্রস্তাবিত সাইলো নির্মানাধীন এলাকায় একটি বধ্যভূমি স্মৃতি স্বারক নির্মান করার সকল ব্যয়ভার খাদ্য বিভাগ বহন করবে। অন্যথায় অত্যাধুনীক খাদ্যগুদাম (সাইলো) নির্মাণের সকল কর্মকান্ড স্থগীত করা হবে।

এর পূর্বে মুক্তিযুদ্ধের বরিশাল বধ্যভূমি রক্ষা কমিটির পক্ষে আহবায়ক মানবেন্দ্র বটব্যাল বরিশালের মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিবাহী বধ্যভূমি রক্ষা করে অত্যাধুনিক খাদ্যগুদাম নির্মাণের দাবি জানান। রক্ষা কমিটির পক্ষে মন্ত্রীবরাবরে স্বারকলিপি প্রদান করা হয়। এর আগে ত্রিশ গোডাউনের বধ্যভূমিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন খাদ্যমন্ত্রী।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বরিশাল সদর আসনের সংসদ সদস্য জেবুন্নেছা আফরোজ, বরিশাল ২ আসনের সংসদ সদস্য এ্যাড. তালুকদার মোঃ ইউনুস, বরিশাল ৩ আসনের সংসদ সদস্য এ্যাড. শেখ মোঃ টিপু সুলতান, বরিশাল সিটি করপোরেশনের মেয়র আহসান হাবিব কামাল সহ প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও মুক্তিযুদ্ধ সংসদের নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য,কীর্তনখোলার তীরে বধ্যভূমি এলাকায় পাঁচ একর জলাশয় ভরাট করে বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে সাইলো স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে খাদ্য বিভাগ। ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে জলাধার ভরাট কাজ শুরু করা হলে ক্ষুদ্ধ নাগরিক সংগঠনগুলো প্রতিবাদ জানায়। পরে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিবেশ অধিদফতরের অনুমতি ছাড়া জলাধার ভরাটের অভিযোগে তা বন্ধ করে দেয়। এরপওে গতকাল সকলের দাবির পেক্ষিতে নগরীর ত্রিশ গোডাউন বধ্যভূমি এলাকায় অত্যাধুনীক খাদ্য গুদাম নির্মানের কার্যক্রম পরিদর্শন।

বিডিটাইমস৩৬৫যটকম/জেডএম

উপরে