আপডেট : ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৫ ১৩:৫২

সাতকানিয়ায় ভোটকেন্দ্রের বাইরে গোলাগুলি,নিহত ১

অনলাইন ডেস্ক
সাতকানিয়ায় ভোটকেন্দ্রের বাইরে গোলাগুলি,নিহত ১
ছবি প্রতিকি

চট্টগ্রামের সাতকানিয়া পৌরসভা নির্বাচনে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের ভোটকেন্দ্রে প্রভাব বিস্তারকে কেন্দ্র করে গুলিতে নুরুল আমিন (৪৮) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

বুধবার সকাল ১০টার দিকে সাতকানিয়া সরকারি কলেজ ভোটকেন্দ্রের পূর্বপাশে কলেজ হোস্টেলের দক্ষিণ-পূর্বকোণে ওই সংঘর্ষ-গুলির ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের ভাষ্য, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে কাউন্সিল প্রার্থী আবদুল হালিম ও মোজাম্মেল হকের সমর্থকদের মধ্যে ওই সংঘর্ষ হয়। তারা আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত।

নিহতের স্বজনরা জানান, নিহত নুরুল আমিন পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের গোয়াদের পাড়ার আব্দুর রহিমের ছেলে। তার মহেশখালীতে লেপের দোকান আছে। তিনি আওয়ামী লীগ সমর্থক। মেয়রকে ভোট দিতে কেন্দ্র গিয়ে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে গোলাগুলির মধ্যে পড়ে যায়।

এসময় নুরুল আমিন গোলাগুলির মাঝখানে পড়ে গিয়ে গুলিবিদ্ধ হন। গুরুতর আহত অবস্থায় সাতকানিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, নিহত ব্যক্তির লাশ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

সাতকানিয়া থানা-পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) জুলুস খান পাঠান বলেন, ভোটকেন্দ্রের বাইরে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ চলাকালে কোনো এক পক্ষের গুলিতে ওই ব্যক্তি নিহত হয়েছেন বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।

নাম প্রকাশ না করে একাধিক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, ভোটে আধিপত্য বিস্তার করা নিয়ে দুই কাউন্সিল প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের একপর্যায়ে গুলিতে আহত হন নুরুল আমিন। কোন পক্ষ বা কে গুলি ছুড়েছে, তা জানাতে পারেনি প্রত্যক্ষদর্শীরা।

এদিকে সাতকানিয়া পৌরসভা নির্বাচনে নানা অনিয়মের অভিযোগ এনেছে বিএনপি। দলটির মেয়র প্রার্থী রফিকুল আলমের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সমন্বয়ক শেখ মুহাম্মদ মহিউদ্দিন দুপুরের দিকে ওই অভিযোগ তুলেন।এসময় নির্বাচন বাতিল করে পুননির্বাচন দেয়ার দাবি জানান তিনি।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে

 

উপরে