আপডেট : ২৭ ডিসেম্বর, ২০১৫ ১৮:০১

তুরাগ তীরে ৭১ কিলোমিটার মানববন্ধন

বিডিটাইমস ডেস্ক
তুরাগ তীরে ৭১ কিলোমিটার মানববন্ধন

দূষণ বন্ধ এবং অবৈধ দখল উচ্ছেদের দাবিতে ২৬ ডিসেম্বর শনিবার সকালে পরিবেশবিদরা তুরাগ নদীর তীরবর্তী বিভিন্ন স্থানে ৭১ কিলোমিটার দীর্ঘ একটি মানববন্ধন করেছেন।
‘নদী বাঁচাও আন্দোলন’ সংগঠনের নেতৃত্বে বিভিন্ন পরিবেশবাদী সংগঠনের অংশগ্রহণে মানববন্ধনটি অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে তুরাগকে অবৈধ দখল থেকে মুক্ত করা এবং পরিবেশবান্ধব শিল্প স্থাপনের মাধ্যমে নদীতে দূষণমুক্ত পানি নিশ্চিত করার দাবি জানানো হয়।

১৫টি পৃথক স্থানে এই মানববন্ধন আয়োজন করা হয়। এর মধ্যে সাভার উপজেলার কালিয়াকৈর বাজার, কড্ডা বাজার, টঙ্গী ব্রিজ, কামারপাড়া সেতু ইজতেমার কাছে স্থল এলাকা, গাজীপুর সদর উপজেলার মির্জাপুর বাজার, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ২১ নং ওয়ার্ডের মীরেরগাঁও রেল ব্রীজ সংলগ্ন এলাকা, আশুলিয়া, আমিন বাজার ব্রিজ ও বসিলা ব্রীজ সংলগ্ন এলাকা উল্লেখযোগ্য।

কড্ডা বাজার এলাকার মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ নদী বাচাঁও আন্দোলনের সভাপতি অধ্যাপক আনোয়ার সাদাত সঞ্চালক ছিলেন এম সাইফুল ইসলাম মোল্লা। বক্তব্য দেন গাজীপুর সদর থানা  আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আতাউল্লাহ মন্ডল, এডভোকেট দেওয়ান আবুল কাশেম, ইঞ্জি. সফি উদ্দিন খান, মো. সাহাজ উদ্দিন। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মো. নাছির উদ্দিন ভুঁইয়া, ডা. গোপাল চন্দ্র দাস, মো. হামিদুল ইসলাম প্রমূখ।
সকাল ১০ টা থেকে শুরু হয়ে মানববন্ধন চলে দুপুর ১২ টা পর্যন্ত চলে।

সমগ্র অনুষ্ঠানটির আহ্‌বায়ক ‍ছিলেন বাংলাদেশ নদী বাচাঁও আন্দোলনের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-সম্পাদক মনোয়ার হোসেন রনি। তার নেতৃত্বে তুরাগের উৎস চাপাই ব্রীজ, কালিয়াকৈর, বড়ইবাড়ি এবং মীর্জাপুর অঞ্চলে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানের সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন বাংলাদেশ নদী বাচাঁও আন্দোলনের কেন্দ্রীয় অর্থ-সম্পাদক তাজুল ইসলাম এবং সমন্বয়ক ছিলেন বাংলাদেশ নদী বাচাঁও আন্দোলনের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক (দপ্তর) ও গাজীপুর প্রেসিডেন্সি স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা ডা. বোরহান উদ্দিন অরণ্য।
 

উপরে