আপডেট : ১৬ নভেম্বর, ২০১৮ ১৬:১২

সবজির বাজারে স্বস্তি, ব্যাগ ভরে বাজার করছেন ক্রেতারা

অনলাইন ডেস্ক
সবজির বাজারে স্বস্তি, ব্যাগ ভরে বাজার করছেন ক্রেতারা

‘কয়েকডা হপ্তা হইলো ব্যাগ ভইরতি কইরা বাজার লইয়া বাসায় ফিরি। দু’হাইত ভইরা বাজারতন পরিবারের কাছে ফিরতে খুউব সুউখ সুউখ লাগে।’

এভাবেই নিজের অনুভূতির কথাগুলো প্রকাশ করছিলেন রিক্সাচালক আমজাদ মিয়া। স্ত্রী, ৩ ছেলে আর ২ মেয়ে নিয়ে সংসার তার। নুন আনতেই পান্তা ফুরায়। বাজারদরের উপরে পরিবারের সুখ অনেকটাই নির্ভর করে, পানের পিক ফেলতে ফেলতে হাসিমুখে এমন কথাই জানালেন তিনি।

নির্বাচনের আগে সাধারণ মানুষকে স্বস্তি দিচ্ছে কাঁচাবাজার দর। রাজধানীর কাঁচাবাজারগুলোতে শীতের সবজি কপি, শিম, মুলা, লাউ, শালগমের পাশাপাশি বিভিন্ন শাকে ভরপুর। শীতের শাক-সবজির সরবরাহ বাড়ায় কমেছে সব ধরনের সবজির দাম। বেশিরভাগ সবজিই পাওয়া যাচ্ছে ২০ থেকে ৩০ টাকার মধ্যে। ফলে সবজির দামে নেমে এসেছে স্বস্তি।

আজ শুক্রবার রাজধানীর মোহাম্মদপুরের টাউন হল কাঁচাবাজারে সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, ঢেড়শ ৩০ টাকা, বেগুন ৩৫ টাকা, পটল ২৫ টাকা, টমোটো ৪০ টাকা, শশা ৩০ টাকা, কাচামরিচ ৫৫ টাকা, গাজর ৮০ টাকা ও মুলা ২০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া ফুলকপি ৩০ থেকে ৪০ টাকা ও পাতাকপি ২০ থেকে ৩০ টাকা পিসে বিক্রি হচ্ছে। সব রকমের শীতকালীন সবজির দাম কমায় কিছুটা স্বস্তি ফিরেছে ক্রেতাদের মাঝে।

তবে অপরিবর্তিত রয়েছে চাল, ডাল, মসলা ও তেলের দাম। প্রতি কেজি মসুর ডাল (দেশি) ১০০ টাকা, ভোজ্যতেল প্রতি লিটার খোলা ৯০ টাকা, বোতল ১০৮ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আদা ১০০-১২০ টাকা, রসুন (ইন্ডিয়ান) ৬০, দেশি ৫৫, পেঁয়াজ (দেশি) ৫০ টাকা, পেঁয়াজ (ইন্ডিয়ান) ৩৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি করতে দেখা গেছে।

বাজারে স্থিতিশীল রয়েছে মাছের দামও।  বাজারে প্রতি কেজি পাঙ্গাস ১১০-১২০ টাকায় বিক্রি হয়- যা গত সপ্তাহে ১২০-১৪০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। কেজিপ্রতি কৈ ১৫০-১৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে- যা গত সপ্তাহে ১৮০-২০০ টাকা বিক্রি হয়েছে।

তেলাপিয়া ১২০-১৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। রুই ২৮০ টাকা কেজি ধরে বিক্রি হয়েছে- যা গত সপ্তাহে ৩০০-৩১০ টাকায় বিক্রি হয়। ট্যাংরা ৩৫০ থেকে ৪৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে- যা গত সপ্তাহে ৫০০-৬০০ টাকায় বিক্রি হয়। শিং ৩০০-৪০০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে- গত সপ্তাহে ৪০০-৫৫০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। চিংড়ি প্রতি কেজি ৫০০-৯০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে- যা গত সপ্তাহে ৬০০-১২০০ টাকায় বিক্রি হয়েছে।

ইলিশের আমদানি বেশি থাকায় দামও কিছুটা কম। বড় সাইজের ইলিশ ৮০০-৯০০ টাকায় এবং মাঝারি সাইজের ইলিশ ৫০০-৭০০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা যায়।

গত সপ্তাহের মতো এ সপ্তাহেও বাজারে গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ৪৮০-৫০০ টাকায়। অপরিবর্তিত আছে। খাসির মাংসের দাম। খাসির মাংস কেজি প্রতি ৭৫০ টাকা।

এদিকে, বয়লার মুরগির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। সাদা বয়লার মুরগি প্রতি কেজি ১২০-১৩০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। লেয়ার মুরগি বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ১৮০-২১০ টাকায়, আর দেশি মুরগি বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ৩৫০-৪১০ টাকায়।

উপরে