আপডেট : ৫ জুলাই, ২০১৯ ১০:০৪

অভিনেত্রীকে গাড়িতে ধর্ষণ করে ছবি তুললেন আদিত্য

অনলাইন ডেস্ক
অভিনেত্রীকে গাড়িতে ধর্ষণ করে ছবি তুললেন আদিত্য

গাড়ির মধ্যে ধর্ষণ করে ছবি তুলে রেখেছিল অভিনেতা আদিত্য পাঞ্চোলি। পুলিশের কাছে এমনই অভিযোগ আনলেন বলিউডের প্রথম সারির এক অভিনেত্রী। পরবর্তীকালে সেই ছবি দেখিয়ে ব্ল্যাকমেল করা হয়েছে বলেও অভিযোগ। অভিনেত্রীর অভিযোগ দেখে রীতিমত চমকে গিয়েছে পুলিশ। বছর কয়েক আগে পুরো ঘটনার কথা পুলিশকে জানানো হলেও কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি বলেও অভিযোগ অভিনেত্রীর। আড়াই পাতার একটি অভিযোগ জমা পড়েছে ভারসোভা পুলিশের কাছে। 

অভিনেত্রী জানিয়েছেন, কতটা নির্মম ভাবে দিনের পরে দিন আদিত্য তাকে অত্যাচার করেছেন, ধর্ষণ করেছেন। অভিনেত্রী জানান, সেই সময়ে চলচ্চিত্র জগতে প্রবেশ করার চেষ্টা করছিলেন তিনি।

তখনই তাকে ধর্ষণ ও ব্ল্যাকমেল করতেন আদিত্য। নিজের বয়ানে তিনি বলেছেন, ২০০৪ সালে আমি অভিনেত্রী হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে মুম্বই এসেছিলাম। ওই বছরই দেখা হয় আদিত্য পাঞ্চোলির সঙ্গে। 

তখন আদিত্যর বয়স ৩৮ বছর। অভিনেত্রীর সঙ্গে তার ২২ বছরের তফাৎ। আদিত্য তখন বিবাহিত। পরিবার সন্তান নিয়ে থাকতেন। আদিত্যর  মেয়ের বয়সি ছিলেন ওই অভিনেত্রী। আদিত্য ওই অভিনেত্রীকে সে সময়ে গাড়ির মধ্যেও ধর্ষণ করেছিলেন বলে তিনি বয়ানে জানিয়েছেন। 

অভিনেত্রী বলেন, ২০০৪ সালে আমি ওঁর সঙ্গে একটি পার্টিতে যাই। একটু মদ্যপ হয়ে গিয়েছিলাম। আমার মনে হয় আদিত্যই আমার ড্রিঙ্কে কিছু মিশিয়ে দিয়েছিলেন। এরপর আমি গাড়িতে উঠি আদিত্যর সঙ্গে। রাস্তার মাঝখানে গাড়ি দাঁড় করিয়ে আমায় ধর্ষণ করেন এবং আমার অজান্তে ছবিও তোলেন। এই ঘটনার কিছুদিন পর ফের আদিত্যর সঙ্গে  দেখা হয় ওই অভিনেত্রীর। এরপর আমাকে তিনি বলেন আমরা স্বামী স্ত্রীর মত থাকব। 

অভিনেত্রী তখন বলেন যে আদিত্য তার বাবার বয়সী। তখন সেই ছবিগুলি তাকে দেখানো হয়। মঙ্গলবার মুম্বইয়ের স্থানীয় আদালতের বিচারপতি এইচ বি গাইকওয়াড় এই মামলায় ১৯শে জুলাই পর্যন্ত স্থগিতাদেশ দিয়েছেন। আদিত্যর আইনজীবী প্রশান্ত পাটিল জানিয়েছেন, ১৫ বছর পরে ধর্ষণের মামলার কোনও ভিত্তি  নেই। 

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রাসেল

উপরে