আপডেট : ২০ অক্টোবর, ২০১৮ ১০:০৮

এবার ফাঁসলেন আনু মালিক এবং সুশান্ত

অনলাইন ডেস্ক
এবার ফাঁসলেন আনু মালিক এবং সুশান্ত

একদিকে বাংলাদেশে চলছে কিংবদন্তি সঙ্গীতশিল্পী আইয়ুব বাচ্চুকে হারানোর শোক। অন্যদিকে ভারতে চলছে সম্ভ্রম হারানো নারীদের আন্দোলন ‘হ্যাশট্যাগ মি টু’। শ্লীলতাহানির শিকার হওয়া নারীরা একের পর এক প্রকাশ্যে আনছেন অভিযুক্তদের নাম। এরমধ্যে রয়েছেন অনেক হাইপ্রোফাইল তারকা। নানা পাটেকার, সাজিদ খান, অলক নাথ, কৈলাস খেরের মতো তারকাদের পর এবার অভিযুক্তদের তালিকায় যোগ হলো অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত ও সংগীত পরিচালক আনু মালিকের নাম।

আনু মালিকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ এনেছেন সংগীতশিল্পী শ্বেতা পন্ডিত। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তিনি আনুকে পেডোফলিক (শিশু নির্যাতনকারী) বলে ধিক্কার জানিয়েছেন। টুইটারে শ্বেতা জানান, ২০০১ সালের দিকে আনু মালিকের ম্যানেজার শ্বেতাকে ফোন করেন। তখন ম্যানেজার জানিয়েছেন আনু তাঁর সঙ্গে দেখা করতে চায়। শ্বেতাকে আনুর আন্ধেরির এম্পায়ার স্টুডিওতে দেখা করার কথা বলেন। এমন খবরে বেশ আনন্দিত হয়েছিলেন তিনি। কথা অনুযায়ী আনুর স্টুডিওতে যান। সেখানে আনু তাঁকে কথা বলার এক পর্যায়ে জোর করে চুমু খান। মুহূর্তেই তাঁর উচ্ছ্বাস ম্লান হয়ে যায়। সে সময় শ্বেতার বয়স ছিল ১৫ বছর।

সুশান্ত সিং রাজপুতের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছেন অভিনেত্রী সাঞ্জানা সাঙ্গি। তাঁর অভিযোগ, যোধপুরে ‘কিজি আউর ম্যায়’ ছবির শুটিং চলাকালীন তাঁকে অশ্লীল ইংগিত করতেন সুশান্ত। শুধু তা-ই নয়, বিভিন্ন সময় তাঁকে হয়রানিও করেছেন। সুশান্তের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে চেয়েও তিনি পারেননি, কারণ তাঁকে তাঁর পরিচালক চুপ থাকতে বলেছিলেন।

এমন অভিযোগের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন সুশান্ত। তাঁর কথায়, ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করতে এবং পরিচিতি পাওয়ার জন্যই এমন অভিযোগ করছেন সাঞ্জানা। নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করতে তিনি কথোপকথনের কিছু স্ক্রিনশট প্রকাশ করেছেন। সেই সঙ্গে কিছু প্রশ্নও ছুঁড়ে দেন এই অভিনেতা। এই ঘটনায় মুখ খুলেছেন ছবির পরিচালক মুকেশ ছাবোরা। তাঁর মতে, শুটিং চলাকালীন সময়ে এমন কোনো ঘটনা তিনি দেখেননি এমনকি শোনেননি।

এদিকে যৌন হয়রানির অভিযোগের বিরুদ্ধে সুশান্তের মন্তব্য পাওয়া গেলেও আনু মালিকের কোনো বিবৃতি পাওয়া যায়নি।

উপরে