আপডেট : ২৭ মার্চ, ২০১৬ ১২:২১

আমি মানুষের মতো মানুষ হতে চাইঃ কাঙ্গানা

বিনোদন ডেস্ক
আমি মানুষের মতো মানুষ হতে চাইঃ কাঙ্গানা

ব্যক্তিগত সম্পর্কে চিড় ধরলেই কেন যে কেউ কেউ আইনজীবীদের কাছে দৌড়ন, তা বোধগম্য হয় না কঙ্গনা রানাউতের। পাশাপাশি, স্বভাবের মুদ্রাদোষে তিনি যে কেবলই ‘ভুল ব্যক্তিদের’ দিকে ঢলে পড়েন, তা-ও স্বীকার করেছেন এই বলিউড নায়িকা। 

নয়াদিল্লিতে আজ এক অনুষ্ঠানে বিয়ে এবং প্রেম নিয়ে নিজের মতামত জানিয়েছেন কঙ্গনা। যে মতামতের আবহে উচ্চারিত না-হয়েও আগাগোড়াই ‘ছিলেন’ হৃতিক রোশন। হৃতিক এবং তাঁর আইনি নোটিসের লড়াই সম্পর্কে একটি বাক্যও খরচ করেননি কঙ্গনা। কিন্তু তিনি যা বলেছেন, তা সেই আইনি লড়াইয়ের অনুষঙ্গে।

ওই অনুষ্ঠানে কঙ্গনা বলেন, ‘‘বর্তমান পৃথিবীতে বিয়ের অর্থ পাল্টে গিয়েছে। আমরা পুরুষের অর্থসম্পদ বা সামাজিক প্রতিষ্ঠার উপরে নির্ভরশীল নই। এখনকার মহিলারা মোটামুটি স্বাধীন। তিনি এমন কাউকে খোঁজেন যিনি তাঁকে বুঝবেন।’’

এরপরেই কঙ্গনা চলে যান সম্পর্কজনিত সমস্যা মেটাতে আইনি সহায়তা নেওয়ার প্রসঙ্গে। তাঁর কথায়, বুঝি না, সম্পর্কে সমস্যা দেখা দিলেই  আইনজীবীর কাছে যেতে হয় কেন! সবকিছুই বদলাচ্ছে। সম্পর্কেও বদল হতে পারে, কেউ একটিমাত্র সম্পর্কে আটকে থাকতে না। সেজন্য মামলা করা  ঠিক নয়।

বিচারব্যবস্থায় উপর আস্থা রাখতেই হয়। আইনজীবীর নোটিস পেলে এবং তিনি তোমাকে জেলে পাঠাতে পারেন এই বিশ্বাস রাখতেই হয়। আমি আইন তৈরি করি না, তা পাল্টাতেও পারি না। সুতরাং আইন মেনেই চলি।’’

শুধু সম্পর্ক প্রসঙ্গেই নয়, ‘সুপারস্টার’ প্রসঙ্গেও ‘বিস্ফোরক’ ছিলেন ‘কুইন’ ছবির নায়িকা। কঙ্গনার কথায়, এখন তো কারও সোশ্যাল মিডিয়ায় বহু ফলোয়ার থাকলে, এমনকী কারও বড় পশ্চাৎদেশ থাকলেও সে সুপারস্টার। আমি সোশ্যাল মিডিয়ায় অ্যাকাউন্ট খুলে চাঞ্চল্যকর কিছু করে ফেললে রাতারাতি সুপারস্টার হয়ে যাব। কিন্তু আমি তা চাই না। অতীতেও অনেক সুপারস্টার ছিলেন। কে তাঁদের মনে রেখেছে? আমি মানুষের মতো মানুষ হতে চাই।’’ 

 

উপরে