আপডেট : ১ মার্চ, ২০১৬ ২০:৩৬

এবারও বর্ণ বিদ্বেষের শিকার প্রিয়াঙ্কা!

বিনোদন ডেস্ক
এবারও বর্ণ বিদ্বেষের শিকার প্রিয়াঙ্কা!

কোয়ানটিকো-য় অভিনয়ের সময় প্রথম দিকে বুঝতে পারেননি। কিন্তু, পরে বিষয়টি সামনে আসে তাঁর। গায়ের রং বাদামী, আর সেই জন্যই ”আরব টেররিস্ট” বলে একাধিকবার কটাক্ষ সহ্য করতে হয়েছে তাঁকে। কিন্তু, কেন? পশ্চিমের দেশগুলি যখন এগিয়ে গিয়েছে, তখনও কেন গায়ের রং-এর জন্য ওই ধরণের কটাক্ষ শুনতে হবে তাঁকে? অস্কারের মঞ্চে পুরস্কার দেওয়ার আগে বর্ণ বিদ্বেষের এমনই এক আখ্যান তুলে ধরলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।

মার্কিন সংবাদপত্রের একটি সাক্ষাত্কারে প্রিয়াঙ্কা জানিয়েছেন, গায়ের রং সাদা না হওয়ার জন্য কীভাবে কটাক্ষ শুনতে হয়েছে তাঁকে। কোয়ানটিকো একটি গান যখন সে দেশের একটি ম্যাচে চালানো হয়, তখন হঠাত করেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করে, ”কে ওই আরব টেররিস্ট?” আর তারপরই প্রিয়াঙ্কার পালটা কটাক্ষ, ”আমি মাঝে মাঝে ভাবি, কারা এরা? যাঁরা এখনও সেই পুরনো ধ্যান ধারণা নিয়ে বসে রয়েছেন?”

শুধু তাই নয়, কেন আরবের সব মানুষকে ”টেররিস্ট” বলে কটাক্ষ করা হবে? সেই প্রশ্নও তোলেন পিগিl পাশপাশি, আরও প্রশ্ন তোলেন, ”শুধুমাত্র বাদামী রঙের জন্যই কি আমাকে আরব টেররিস্ট বলে হবে?” গায়ের রং-এর জন্য যখন কটাক্ষ শুনতে হয়েছে তাঁকে ? তখন এ বিষয়ে প্রতিবাদ করেননি কেন? ওই প্রশ্নের উত্তরে পিগি জানিয়েছেন, এটা যদি ভারতবর্ষ হত, তাহলে জোর গলায় এর প্রতিবাদ করতেন। কিন্তু, মার্কিন ইন্ডাস্ট্রিতে নতুন তিনি। মাত্র সাত মাস হয়েছে, তিনি এসেছেন এখানেl তাই, ইন্ডাস্ট্রিটা কেমন, সেটা পরখ করে নিতে চাইছেন বলেও সাফ জানান পিগি।

তবে, গায়ের রং সাদা না হওয়ার জন্য যে, এই প্রথম প্রিয়াঙ্কাকে কটাক্ষ শুনতে হয়েছে, এমন নয়। তিনি বলেন, পড়াশোনার জন্য যখন মার্কিন মুলুকে ছিলেন তিনি, তখন একাধিকবার তাঁকে ”ব্রাউনি” ”কারি” বলে কটাক্ষ করা হ। এমনকি, নিজের দেশের তুমি কেন ফিরে যাচ্ছ না, বলেও প্রিয়াঙ্কাকে প্রশ্ন করা হয়েছে একাধিকবার।

তবে, সব শেষে প্রিয়াঙ্কা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, তিনি ”ইন্ডিয়ান-আমেরিকান” নন। তিনি পুরোপুরি ”ইন্ডিয়ান ইন্ডিয়ান”l তাই, প্রথম দিকে তিনি বেশ কিছুটা নার্ভাস ছিলেন এই জন্য যে, তাঁকে মার্কিন মুলুকের মানুষ পছন্দ করবেন কি না, সেটা ভেবে

প্রসঙ্গত, বিগ ব্রাদার বলে একটি রিয়েলিটি শো-এ অংশ নিয়ে বর্ণ বিদ্বেষের শিকার হয়েছিলেন শিল্পা শেটটিও। যা নিয়ে ওই সময় বেশ সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছিল মার্কিন টেলিভিশনের ওই শো-কে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এসএম

উপরে