আপডেট : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১২:৫৭

জেলের ভেতর ‘কবি’ হয়ে গেছেন সঞ্জয়!

জেলের ভেতর ‘কবি’ হয়ে গেছেন সঞ্জয়!

জেলের জীবন ভয়ানক কঠিন! সারা পৃথিবী থেকে ২দিন বিচ্ছিন্ন হয়ে থাকলেই কেমন দমবন্ধ লাগে। এমন দমবন্ধ অবস্তায় নতুন করে নিজেকে চিনেছেন বলিউড অভিনেতা সঞ্জয় দত্ত। ৪২ মাস জেলে কাটিয়েছেন তিনি। আর এই সাড়ে তিন বছরে তিনি লিখে ফেলেছেন অন্তত ৫০০টি কবিতা!

সাধারণ মানুষের কাছে অর্থের মূল্য ঠিক কতটা, তাও তিনি বুঝেছেন জেলে থেকেই। প্রতি মাসে হাত খরচের জন্য জেলের তরফে ২ হাজার টাকা পেতেন কয়েদি সঞ্জয় দত্ত। সেই বেতন থেকে ২০ টাকা সরিয়ে রাখতেন তিনি। হঠাৎ করে প্রয়োজন পড়লে সেই টাকায় হাত পড়ত। 

বৃহস্পতিবার পুণের ইয়েরওয়াড়া জেল থেকে মুক্তি পাওয়ার পর একথা জানালেন বলিউড অভিনেতা। 

শুধু তাই নয়, এই ক’বছরে তিনি হয়ে উঠেছেন একজন কবিও। সাজন ছবিতে শায়ারের (কবি) ভূমিকায় দেখা গিয়েছিল সঞ্জু বাবাকে। জেলে থাকাকালীন বাস্তবেও তিনি শায়ার হয়ে উঠেছিলেন। 

দুই কয়েদি সমীর ও জীশানের থেকে কবিতা লেখার অনুপ্রেরণা পেয়েছিলেন। জানালেন, ‘ওদের কবিতা বেশ ভাল লাগত। ওদের সঙ্গে আমিও শায়েরি লিখতে শুরু করি। জেলে বসে ৫০০টা শায়েরি লিখে ফেলেছি। সেগুলোকে ছাপিয়ে একটা বই প্রকাশ করব। 

১৯৯৩ সালে মুম্বই ব্লাস্টের সঙ্গে তার কোনও যোগ নেই। বেআইনি অস্ত্র রাখার দোষেই ৪২ মাস সাজা কাটালেন তিনি। জোর গলায় জানালেন, ‘আদালত বলে দিয়েছে আমি দেশদ্রোহী নই। এটাই সবচেয়ে বড় পাওয়া।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/মাঝি

উপরে